Health experience | Write here | Write and share your health experience to help community.

আলসারের রোগিরা যেসব নিয়ম অনুসরণ করলে তাৎক্ষনিক বুক জ্বালা-পোরা থেকে কিছুটা মুক্তি পাবেন

Fahima Jara Thursday, August 05, 2021


আলসার পাকস্থলীকে ক্ষয় করে এবং যার কারণে শরীরের অভ্যন্তরীন ইনফেকশন ও রক্তপাত হতে পারে। 


আলসারের শুরু দিকে সাধারণত খুব বুক জ্বালা-পুরা করে থাকে। আলসার পাকস্থলীর ভিতরে হওয়ার মূল কারণ হলো অস্বাস্থ্যকর খাবার ও এলোমেলো জীবনযাপন। আলসার সাধারণত দুই ধরনের।যথা-

১.পাকস্থলীতে আলসার

২.অয়েসোফাগাস আলসার।


পাকস্থলীর আলসারের সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণগুলির মধ্যে একটি হল মানুষের বুক এবং পেটের মাঝখানে একটি জ্বলন্ত ব্যথা। ব্যথা কয়েক মিনিট থেকে কয়েক ঘন্টা পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে। লক্ষণগুলি ব্যক্তিভেদে পরিবর্তিত হয়।  বেশিরভাগ মানুষ খাবারের পরে অনুভব করে। ব্যথা অনিদ্রা সৃষ্টির জন্য যথেষ্ট গুরুতর হতে পারে এবং স্ট্রেস দ্বারা উদ্দীপিত হতে পারে।তবে, এমন অনেক ঘরোয়া প্রতিকার রয়েছে যা পেটের অ্যাসিডের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সহায়তা করে। ঘরোয়া প্রতিকার ব্যবহার শুরু করার আগে একজন ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করা জরুরি।


আলসার সারানোর ঘরোয়া প্রতিকার ; 

নারকেল : নারকেল আলসার রোগীদের জন্য খুবই উপকারী। নারকেলে রয়েছে অ্যান্টব্যাকটেরিয়াল উপাদান যেটা আলসার কমাতে অনেক সহায়তা করে থাকে। সকালে এবং রাতে নারকেল খাওয়ার সময় যদি এক চামচ নারকেল তেল মিশিয়ে খাওয়া যায় তাহলে স্বাস্থ্যর জন্য অনেক ভালো। নারকেল তেল দ্রুত হজম হতে সাহায্য করে থাকে। 


মেথি পাতা : মেথি পাতা আলসার রোগীদের জন্য অনেক উপকারী। সকালে খালি পেটে ফুটানো উষ্ণ গরম পানির সাথে এক চিমটি লবণ দিয়ে খেলে অনেক উপকার পাওয়া যায়। 


কাচা মরিচ : কাচা মরিচে প্রচুর ভিটামিন থাকে। কাচা মরিচ আলসার রোগীদের জন্য অনেক উপকারী। কেননা, কাচামরিচ আলসার রোগীদের পাকস্থলীতে থাকা ব্যাকটেরিয়া সারাতে সাহায্যে করে। 


কলা : পাকস্থলীর আলসারের চিকিৎসার জন্য পাকা এবং আধা পাকা কলা খুবই কার্যকরী। কারণ, তাদের কিছু নির্দিষ্ট ব্যাকটেরিয়ারোধী যৌগ রয়েছে যা আলসারের বৃদ্ধি রোধ করে। এটি গ্যাস্ট্রিকের রসের প্রদাহ কমাতে এবং পেটের আস্তরণকে শক্তিশালী করে। যারা কলা খেতে না পারে তারা কলাশ্বেক খেলেও অনেক উপকার পাবে। 


মধু : মধুর রয়েছে শক্তিশালী বৈশিষ্ট্য যা পেটের আলসারের চিকিৎসায় অনেক সাহায্য করে। এতে গ্লুকোজ অক্সিডেস রয়েছে যা হাইড্রোজেন পারক্সাইড উৎপন্ন করে এবং ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়াকে হত্যা করে। এটি আলসারের বিকাশে অবদান রাখতে পারে। মধুতে অন্যান্য অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান রয়েছে যা ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া দূর করতে সাহায্য করে। সকালে দুই টেবিল চামচ কাঁচা মধু খাওয়ার অভ্যাস করলে তা অন্ত্র পরিষ্কার করতে সাহায্য করবে। পেটের আস্তরণকে শক্তিশালী করবে এবং আলসার প্রতিরোধ করবে।


দুধ : পাকস্থলীর আলসারের একটি কার্যকর চিকিৎসা হল মিষ্টিহীন ঠান্ডা দুধ পান করা। কারণ, এটি অ্যাসিড গঠন কমাতে সাহায্য করে। এটি জ্বালাপোড়া থেকে মুক্তি দেবে। এছাড়াও, ছাগলের দুধ আলসারের চিকিৎসার জন্য একটি কার্যকর পানীয় হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে।


ভিটামিন-ই সমৃদ্ধ খাবার : ভিটামিন ই আলসার কমাতে সাহায্য করে। মাছ, কাজুবাদাম ইত্যাদিতে ভিটামিন ই থাকে।


তাজা রস : বিভিন্ন রকম ফলের রস। যেমন - কমলা, আঙ্গুর, আনার, মালটা ইত্যাদির রস আলসারের বৃদ্ধি নিধন করে থাকে। 


বাঁধাকপি : অন্য সব কার্যকরী পদ্ধতির মধ্যে, বাঁধাকপির রস পেটের আলসারের চিকিৎসার সর্বোত্তম উপায়। এটি ভিটামিন সি এর একটি নির্ভরযোগ্য উৎস যা আলসার রোগীদের গ্যাস্ট্রিকের রসে কম পাওয়া গেছে। এই সস্তা এবং নিরাপদ খাবারটি উপকারী ল্যাকটিক অ্যাসিড ব্যাকটেরিয়া সমৃদ্ধ। এটি একটি অ্যামিনো অ্যাসিড উৎপাদন করে যা পেটের আস্তরণে রক্ত ​​প্রবাহ বাড়িয়ে তুলতে সহায়তা করে।


রসুন : রসুন পেটের আলসারের চিকিৎসায় সাহায্য করতে পারে। সিয়াটেলের ফ্রেড হাচিনসন ক্যান্সার রিসার্চ সেন্টারের এক গবেষণায় বলা হয়েছে, রসুনের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল প্রপার্টি রয়েছে যা এইচ পাইলোরি ব্যাকটেরিয়ার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে যা শেষ পর্যন্ত পেটের আলসারের কমাতে অবদান রাখে।


ফাইবার সমৃদ্ধ এবং কম চর্বিযুক্ত খাদ্য অনুসরণ খেতে হবে । সবুজ শাকসবজি, ফলমূল বেশি করে খেতে হবে। আলসার কমানোর জন্য নিয়মিত প্রোবায়োটিক খাবার খেতে হবে।  যেমন - আপেল, ব্রুকোলি, স্ট্রবেরি, ক্যাপসিকাম, গাজর, দই, অলিভয়েল, যষ্টি মধু ইত্যাদি।  অ্যালোভেরার রস পানিতে মিশিয়ে পান করতে হবে। ঠান্ডা পানি পান করা, কাঁচা শসা বা শসার রস পান করলে অনেক উপকার পাওয়া যায়। 


আলসার হলে যেসব খাবার এড়িয়ে চলতে হবে। সেগুলো হলো-

১. কফি, অ্যালকোহল, সাইট্রাস জুস, চিনি।

২. গরম এবং মসলাযুক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন।

৩. ঝাল জাতীয় খাবার। 

৪.  লাল মাংস।


অতএব, আলসার থেকে বাঁচতে হলে অবশ্যই নিয়মিত সুন্দর জীবনযাপন ও স্বাস্থ্যকর খাদ্য তালিকায় রাখতে হবে। 


Share

You May Like

Cloud categories

skin infections common krait prevention of tuberculosis rhinitis injuries infertility cold sores stiff neck osteoporosis emergency contraception dermatitis sneezing iron deficiency angina gastric ulcer nervousness anaphylaxis pancreatic brain tumors candidiasis premenstrual dysphoric disorder aids warts pneumonia insect bites cancer depression genital warts snake venom generalized anxiety disorder cirrhosis myalgia peritonitis neurosyphilis malnutrition whooping cough

দিন দিন ডিপ্রেশন বেড়ে যাচ্ছে কি

বর্তমান সময়ে আমাদের জীবনের অন্যতম বড় সমস্যা ডিপ্রেশন। আমাদের পরিবার, বন্ধু-বান্ধব, এমনকী ন ...

1 Like

কেন ডাক্তাররা সিজার করেন? জেনেনিন সিজার করার কারণ সমূহ

স্বাভাবিক ডেলিভারি ঝুঁকিপূর্ণ হলে মা ও শিশুর সুস্থতার স্বার্থে সিজার পদ্ধতিতে ডেলিভারির প্ ...

2 Like

আপনি কি অ্যালকোহল পান করেন ? কিছু বিষয় যেনে পান করুন

অ্যালকোহল এমন একটা পানীয় যা দেখলেই পান করতে মন চায়। আগের দিনে অ্যালকোহল জলের বিকল্প হিসেব ...

2 Like

প্লাস্টিকের চাল,দেখুন আমরা কি খাচ্ছি টাকা দিয়ে কিনে

প্লাস্টিকের চাল,দেখুন আমরা কি খাচ্ছি টাকা দিয়ে কিনে।যারা চাল কিনে খান তারা ভাত রান্না করা ...

0 Like

মাথায় উকুন হলে কি করবেন?

যার একবার হয়েছে সেই জানে এর কষ্ট। তাই তো সবাই বেঁচে বেঁচে থাকে উকুনের থেকে। কিন্তু তবু কি ...

0 Like

পেটের চর্বি কমানর সহজ কিছু ব্যায়াম। পর্ব ১

পেটের চর্বি কি আপনার ঘুম হারার করে দিয়েছে? আজকাল ছোট বর অনেকেই এই সমস্যায় জর্জরিত। কিন্তু ...

1 Like

পেটের চর্বি কমানর সহজ কিছু ব্যায়াম। পর্ব 2

গত পর্বে লিখা হয়েছিল কিভাবে ক্রাঞ্চেস (Crunches) করবেন। না পরে থাকলে নিচের লিঙ্ক থেকে দেখে ...

1 Like

পানির সঙ্গে অল্প পরিমাণে মধু মিশিয়ে খেলে যেসব উপকার পাবেন

পানির সঙ্গে প্রতিদিন অন্তত একবার করে মধু মিশিয়ে পান করতে পারলে তা আমাদের শরীরের জন্য ভালো। ...

0 Like