Health experience | Write here | Write and share your health experience to help community.

স্পন্ডিলাইটিস বা পিঠে ব্যাথা কেন হয়? স্পন্ডিলাইটিসের লক্ষণ ও চিকিৎসা

Fahima Jara Wednesday, September 22, 2021

স্পন্ডিলাইটিস যা অ্যানকাইলোসিং স্পন্ডিলাইটিস নামেও পরিচিত। এটি আর্থ্রাইটিসের একটি রূপ যা মেরুদণ্ডকে প্রভাবিত করে এবং পিঠে প্রচুর ব্যাথা করে। এটি কশেরুকার তীব্র প্রদাহ সৃষ্টি করে। যা কেবল অস্বস্তিই সৃষ্টি করতে পারে না বরং দীর্ঘস্থায়ী ব্যাথায় পরিণত হতে পারে। এই রোগের গুরুতর ক্ষেত্রে, মানুষের মেরুদণ্ডের কিছু ছোট হাড় একত্রিত হয়ে একটি নতুন হাড় গঠন করতে পারে।


হাড়ের এই ফিউজিং অত্যন্ত বেদনাদায়ক হতে পারে এবং বিকৃত অঙ্গবিন্যাস হতে পারে। পিছনে ফিরে তাকানো এবং মেরুদণ্ড সোজা রাখার মতো সমস্যাগুলি স্পন্ডিলাইটিসের সময় সবচেয়ে সাধারণ সমস্যা। প্রায়শই, যারা পিছনে ফিরে তাকাতে কষ্ট অনুভব করেন, তারাই শ্বাসকষ্টের অভিযোগ করেন। কারণ এটি পিঠের দিকে বাঁকানো পাঁজরে চাপ দেয়। যা ফুসফুসের শ্বাস প্রশ্বাসের ক্ষমতাকে আরও বাধাগ্রস্ত করতে পারে।


শরীরের অন্যান্য বড় জয়েন্টগুলোতে যেমন- কাঁধ, নিতম্ব এবং হাঁটুও স্পন্ডিলাইটিসে আক্রান্ত হতে পারে। এই রোগটি সাধারণত মহিলাদের তুলনায় পুরুষদের বেশি প্রভাবিত করে। এটি যৌবনের প্রথম দিকে বিকাশ শুরু করে। ঘন ঘন পিঠে ব্যাথা এবং ঘাড়ে ব্যাথার মতো উপসর্গগুলি দেখা দেয় । অনেক মানুষ প্রদাহ এবং চোখের সমস্যারও অভিযোগ করে যেমন- চোখ ফোলে যাওয়া এবং ফোকাস করতে সমস্যা।


বর্তমানে, এই রোগের কোন নিরাময় কারণ নেই। স্পন্ডিলাইটিস একটি দীর্ঘস্থায়ী রোগ। কিন্তু যথাযথ ঔষধের এবং পরিচর্যার মাধ্যমে এর লক্ষণগুলি প্রায় শূন্যে নামিয়ে আনা যায়। ব্যাথা কমাতে সর্বোত্তম ঔষধের সাহায্যে, পিঠকে শক্তিশালী করার জন্য ব্যায়াম এবং ডাক্তারের অঙ্গবিন্যাস সংশোধন করার টিপস দিয়ে, স্পন্ডিলাইটিসের ভালো কর সম্ভব ।


যদি মানুষের পিঠের নিচের অংশ বা নিতম্বের ব্যাথা থাকে তাহলে সেটা সকালের দিকে প্রকপ বেরে যায়। এই ক্ষেত্রে অবশ্যই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। এই ধরনের ব্যাথা সাধারণত ব্যায়ামের মাধ্যমে ভালো হয়।




স্পন্ডিলাইটিসের কারণ 

কিভাবে স্পন্ডিলাইটিস বিকাশিত হয় তার পিছনে কোন নির্দিষ্ট কারণ নেই। যদিও অনেকে জেনেটিক ফ্যাক্টরকে দোষারোপ করে, অনেকে একইরকম জীবনযাত্রার অভ্যাসকে চিহ্নিত করে। বলা হয়ে থাকে যে যাদের HLA-B27 নামক জিন আছে তাদের জীবনকালে অ্যাঙ্কিলাইজিং স্পন্ডিলাইটিস হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়। যদিও, এই বিশেষ জিনের সমস্ত মানুষ তাদের জীবনে স্পন্ডিলাইটিস বিকাশ করে না।


কিছু ঝুঁকির কারণ রয়েছে যা মানুষকে এই বিশেষ রোগের প্রবণ করে তুলতে পারে। প্রথমত, এটা বলা হয় যে পুরুষদের মহিলাদের তুলনায় স্পন্ডিলাইটিস হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। এছাড়াও, এই রোগটি বেশিরভাগ বয়স্ক, প্রাপ্তবয়স্কদের প্রভাবিত করে। এছাড়াও যারা দীর্ঘ সময় ধরে টেবিলে টান টান হয়ে বসে কম্পিউটারে কাজ করে তাদের স্পন্ডিলাইটিসের সমস্যা দেখা দেয়। অনেক সময় ধরে টিভি দেখা, টান হয়ে বসে মোবাইল টিপলেও স্পন্ডিলাইটিস দেখা দিতে পারে। 




স্পন্ডিলাইটিসের লক্ষণ গুলো নিম্নরুপ- 

১. মাথার পিছনের দিকে ব্যাথা করা ৷ 


২. ভোরবেলায় পিঠ ব্যাথা বেশি করে এবং পিঠে শক্তভাব চলে আসে। 


৩. কোন জিনিস ঝুকে তুলতে গেলে ব্যাথা করে। 


৪. ঘাড় শক্ত হয়ে যায়। 


৫. দীর্ঘ সময় বসে থাকলে পিঠ ব্যাথা করে। 


৬. বাহুতে ও পায়ে দূর্বলতা অনুভব করা৷ 


৭. ভারসাম্যের অভাব 


৮. কাঁধে অস্বাভাবিক অনুভূতি 


৯. কাধের নিচ পর্যন্ত আসতে আসতে ব্যাথা ছড়িয়ে পড়া। 


১০. প্রসাব এবং পায়খানা নিয়ন্ত্রণে অসুবিধা হওয়া। 


১১. মেরুদণ্ড সামনে ও পিছনের দিকে নাড়ালে অনেক ব্যাথা অনুভব করা। 




স্পন্ডিলাইটিসের চিকিৎসা

ব্যায়াম থেকে শুরু করে আকুপাংচার এবং ব্যাথানাশক ঔষধ এমনকি অস্ত্রোপচার পর্যন্ত, এই রোগ নিয়ন্ত্রণের জন্য বিভিন্ন চিকিৎসা পদ্ধতি পাওয়া যায়। স্পন্ডিলাইটিস একটি দীর্ঘস্থায়ী রোগ এবং স্পন্ডিলাইটিস সম্পূর্ণভাবে সেরে ফেলা যাবে না। যথাযথ যত্নের মাধ্যমে নিশ্চিতভাবে এর উপসর্গগুলি কমানো যেতে পারে। সেইসাথে অনেক প্রয়োজনীয় উপকারও পাওয়া যেতে পারে। এখানে এমন কিছু চিকিৎসা পদ্ধতি রয়েছে যা নিজের জন্য প্রয়োগ করলে উপকার পাওয়া যাবে-


১/ ব্যায়াম- ডাক্তাররা প্রথমে যে কাজটি স্পন্ডিলাইটিস রোগীদের করার পরামর্শ দেয় তা হলো ব্যায়াম। এই দীর্ঘস্থায়ী রোগ বিশ্রামের সাথে আরও খারাপ হয় এবং চলাচলের সাথে উন্নতি হয়। হালকা প্রসারিত ব্যায়াম এবং যোগব্যায়াম ভঙ্গি সুপারিশ করা যেতে পারে যা শুধুমাত্র পরামর্শের পরে করা উচিত।


২/ সমর্থন ধনুর্বন্ধনী- মানুষের মেরুদণ্ডে বাহ্যিক সমর্থন দেওয়ার জন্য পিছনে বন্ধনী এবং সাপোর্ট ব্যান্ডেজ রয়েছে। তারা অঙ্গবিন্যাস সংশোধনেও সাহায্য করে। মানুষ অপসারণযোগ্য বন্ধনীগুলিও বেছে নিতে পারে। যা মানুষের পিঠে কিছুটা স্বস্তি দিতে পারে এবং এটিকে সোজা রাখতে পারে।


৩/ গরম এবং ঠান্ডা থেরাপি- এই ক্ষেত্রে, গরম এবং ঠান্ডা থেরাপি অনেক প্রয়োজনীয় উপকার প্রদান করতে পারে। ডাক্তার আ সমস্যাটি সবচেয়ে ভালো ভাবে নির্ণয় করবেন এবং গরম বা ঠান্ডা থেরাপির পরামর্শ দেবেন।


৪/ আকুপাংচার- ডাক্তাররা প্রদাহ এবং শরীরের শক্ততা মোকাবেলায় আকুপাংচারের পরামর্শও দিতে পারেন। নিয়মিত আকুপাংচার থেরাপি লক্ষণগুলিকে আরও খারাপ হওয়া থেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে ।


৫/ ম্যাসেজ থেরাপি- ম্যাসেজ থেরাপিও মানুষের পেশী শক্ত করার এবং বিকৃত ভঙ্গি সংশোধন করার পরামর্শ দেওয়া হয়। এটি একটি ধীর প্রক্রিয়া এবং এতে সময় লাগতে পারে। যে কারণে হালকা থেকে মাঝারি উপসর্গের রোগীরা এই পদ্ধতি বেছে নিতে পারেন।


৬/ অস্ত্রোপচার- ডাক্তাররা গুরুতর বিকৃতিযুক্ত ব্যক্তিদের অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে যেতে পরামর্শ দিতে পারে। এটি অকার্জকর হাড়ের দিকে ঝুঁকানোর জন্য করা হয়। যা স্পন্ডিলাইটিস রোগীর চলাচলে বাধা দেয়।


৭/ ব্যাথানাশক-প্রতিদিনের ভিত্তিতে ব্যাথা দূরে রাখার জন্য সাধারণ ব্যাথানাশক এবং ঔষধ নির্ধারিত হয়। অ্যাসপিরিন, আইবুপ্রোফেন, বা নেপ্রোক্সেন স্পন্ডিলাইটিস রোগীর জন্য প্রস্তাবিত কিছু সাধারণ ঔষধ। 


উপরের পরামর্শ গুলো অন্ধভাবে অনুসরণ করা যাবে না। স্পন্ডিলাইটিসের আক্রান্ত রোগীকে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চলতে হবে। চিকিৎসকের দেওয়া প্রেসক্রিপশন ছাড়া কোন রকম ঔষধ সেবন করা যাবে না। 






Share

Cloud categories

antiserum premenstrual dysphoric disorder congestion vitamin-b epilepsy discomfort abdominal pain acne dehydration substance abuse disorders carcinomas skin diseases sunburn weight loss pain cholera blisters hemorrhoids fractures irritable bowel syndrome (ibs) prevention of tuberculosis swine flu dry eye sore throat cavities schizophrenia vertigo antiseptic diphtheria skin infection braces first hepatitis a iron deficiency heart disease psoriasis

কেন ডাক্তাররা সিজার করেন? জেনেনিন সিজার করার কারণ সমূহ

স্বাভাবিক ডেলিভারি ঝুঁকিপূর্ণ হলে মা ও শিশুর সুস্থতার স্বার্থে সিজার পদ্ধতিতে ডেলিভারির প্ ...

2 Like

নাক বন্ধ হলে এন্টাজল দিলে কি ক্ষতি হয়?

 নাক বন্ধে নাকের ড্রপ ব্যবহারে কি কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে? উত্তর: কিছু কিছু না ...

0 Like

শীতকালে সর্দি, কাশি, নাক বন্ধ স্বাভাবিক ব্যাপার তবে যারা দীর্ঘদিন নাকের ড্রপ ব্যবহার করছেন তাদের কিছুটা সতর্ক হওয়া দরকার

কিছু কিছু নাকের ড্রপ আছে যা দীর্ঘদিন ব্যবহারে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। তবে স্যাল ...

1 Like

রোজায় চোখের বা নাকের রোগীদের যে সমস্যা হয়

রোজায় চোখের বা নাকের রোগীরা যে সমস্যায় পড়েন সেটি হল রোজা রাখা অবস্থায় ড্রপ ব্যবহার করতে পা ...

1 Like

পেটের চর্বি কমানর সহজ কিছু ব্যায়াম। পর্ব ১

পেটের চর্বি কি আপনার ঘুম হারার করে দিয়েছে? আজকাল ছোট বর অনেকেই এই সমস্যায় জর্জরিত। কিন্তু ...

1 Like

পেটের চর্বি কমানর সহজ কিছু ব্যায়াম। পর্ব 2

গত পর্বে লিখা হয়েছিল কিভাবে ক্রাঞ্চেস (Crunches) করবেন। না পরে থাকলে নিচের লিঙ্ক থেকে দেখে ...

1 Like

পানির সঙ্গে অল্প পরিমাণে মধু মিশিয়ে খেলে যেসব উপকার পাবেন

পানির সঙ্গে প্রতিদিন অন্তত একবার করে মধু মিশিয়ে পান করতে পারলে তা আমাদের শরীরের জন্য ভালো। ...

0 Like

কোমর ব্যথার কারণ ও দূর করার উপায়

কোমর ব্যথার সমস্যায় কমবেশি সকলেই ভুগে থাকেন, আসুন জেনে নিই কোমর ব্যথার কারণ ও দূর করার উপা ...

0 Like