Health experience | Write here | Write and share your health experience to help community.

ইরেকটাইল ডিসফাংশন বা পুরুষত্বহীনতা কি? এর থেকে কিভাবে মুক্তি পাবেন ও এর চিকিৎসা

Fahima Jara Wednesday, January 12, 2022


যখন কোন পুরুষ কোন নারীর সাথে যৌন মিলন করতে যায়, যৌন মিলনের সময় যদি সেই পুরুষের গোপন অঙ্গ না দাঁড়ায়, অথবা বেশি ক্ষন তার গোপন অঙ্গ না দাঁড়িয়ে থাকে তখন সেটাকে ইরেকটাইল ডিসফাংশন বলা হয়। ইরেকটাইল ডিসফাংশন রোগটি দেশের অধিকাংশ পুরুষের মাঝেই এখন দেখা দেয়। তবে যেসব পুরুষদের বয়স ৪০ এর বেশি। বিশেষ করে তাদের ইরেকটাইল ডিসফাংশনটি বেশি দেখা দেয়। যাইহোক, প্রতিবারই যখন একজন পুরুষ ইরেকশন অর্জন করতে সক্ষম না হয় বা তাদের লিঙ্গ খাড়া করতে সমস্যা হয় বা অসুবিধা হয়, তাকে ইরেক্টাইল ডিসফাংশন বা ইডি হিসেবে ধরা যায় না।


ইডি একটি সাধারণ ধরনের পুরুষ যৌন কর্মহীনতা। যদি ইডি একটি পুনরাবৃত্তিমূলক সমস্যা হয়, এটি চাপ সৃষ্টি করতে পারে এবং মানুষের আত্মবিশ্বাসকেও প্রভাবিত করতে পারে। ইরেকটাইল ডিসফাংশন এর বিকাশের সম্ভাবনা বয়সের সাথে সাথে বৃদ্ধি পায়। ইরেকটাইল ডিসফাংশনের কিছু প্রধান কারণ হলো বার্ধক্য, উচ্চ রক্তচাপ, ধূমপান, বিষণ্নতা, মদ্যপান, একধরনের ট্রমা। ইরেকটাইল ডিসফাংশন যাদের বয়স বেশি তাদের ক্ষেত্রে নিরাময় করা সম্ভব হয় না। 




ইরেকটাইল ডিসফাংশনের সবচেয়ে গুরুতর কারণ গুলোর মধ্যে হলো -

১. কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজ

২. ডায়াবেটিস

৩. স্নায়বিক সমস্যা এবং 

৪. ঔষধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া। 

৫. অতিরিক্ত ওজন

৬. আঘাত

৮. মানসিক চাপ

৯. অ্যালকোহল ব্যবহার




ইরেক্টাইল ডিসফাংশন কিছু জটিলতা সৃষ্টি করতে পারে। যেমন- 

১. সম্পর্কের সমস্যা

২. নিজের সঙ্গীকে গর্ভবতী করতে না পারা

৩. কম আত্মবিশ্বাস এবং 

৪. অসন্তুষ্ট যৌন জীবন।




ইরেকটাইল ডিসফাংশনের কারণ ও লক্ষণ

ইরেকটাইল ডিসফাংশন অনেক কারণে হয়। এগুলি ধীরে ধীরে শারীরিক থেকে মানসিক সমস্যাগুলির মধ্যে পরিবর্তিত হয়। কারণ গুলোর মধ্যে রয়েছে- 

১. তামাক ব্যবহার

২. মদ্যপান

৩. হৃদরোগ

৪. টেস্টোস্টেরনের পরিমাণ কম

৫.বিষণ্নতা

৬. উদ্বেগ বা চাপ

৭. রাতে পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমের অভাব

৮. স্থূলতা

৯. ডায়াবেটিস

১০. উচ্চ কলেস্টেরল

১১. উচ্চ রক্তচাপ

১২. আটকে থাকা ধমনী এবং অন্যান্য রক্তনালী

১৩. মেরুদণ্ডের চারপাশে আঘাত

১৪. অন্তর্নিহিত চিকিৎসা শর্ত

১৫. যৌন ইচ্ছা কমে যাওয়া।

১৬. ইরেকশনে পৌঁছাতে অসুবিধার সম্মুখীন।

১৭.ইরেকশন বজায় রাখা কঠিন।


 


ইরেকটাইল ডিসফাংশন রোগ প্রতিরোধ

১/ ধূমপান এবং অ্যালকোহল পান করা থেকে বিরত থাকতে হবে। 


২/ কার্ডিও এবং অন্যান্য ধরনের ব্যায়াম করা উচিত। কারণ এগুলো একটি সুস্থ হৃদয় বজায় রাখতে সাহায্য করে। 


৩/ মেডিটেশন করতে হবে। কারণ মেডিটেশন মস্তিষ্ককে শিথিল রাখে এবং মানসিক চাপ কমায়।


৪/ তাজা ফল ও শাকসবজি খাওয়া। কারণ এটি শরীরকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। এছাড়াও কফি, গাজর, টমেটো, কাঁচা মরিচ ইত্যাদি বেশি করে খেতে হবে। 


৫/ একটি সুস্থ জীবনধারা ইরেকটাইল ডিসফাংশনের সম্ভাবনা হ্রাস করতে হবে। 


৬/ পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করতে হবে। সেই সাথে স্বাস্থ্যকর খাদ্যের তালিকা বজায় রাখতে হবে। 




ইরেকটাইল ডিসফাংশনের চিকিৎসা

ডাক্তার প্রথমে রোগীর অন্তর্নিহিত স্বাস্থ্যের অবস্থা বের করার চেষ্টা করবে যা ইরেকটাইল ডিসফাংশনের সমস্যা হতে পারে। এর উপর নির্ভর করে ডাক্তার চিকিৎসা শুরু করবেন এবং ঔষধ লিখে দেবেন। যখন চিকিৎসক চিকিৎসা শুরু করবেন তখন রোগীকে অবশ্যই তার পূর্বের লক্ষন গুলো সম্পর্কে চিকিৎসককে জানাতে হবে। 


চিকিৎসক রোগীকে বিভিন্ন রকম ঔষধ দিয়ে থাকেন, যেমন- 

১. সিলডেনাফিল

২. তাদালাফিল

৩. ভারডেনাফিল

৪. আভানাফিল


এই ঔষধ গুলো নাইট্রিক অক্সাইডের প্রভাবকে তরান্বিত করে। যা লিঙ্গে পেশী শিথিল করে, রক্ত ​​প্রবাহ বাড়ায়। ইরেকটাইল ডিসফাংশনের অন্যান্য ঔষধের মধ্যে রয়েছে-

১. আলপ্রোস্টাডিল স্ব-ইনজেকশন, 

২. আলপ্রোস্টাডিল ইউরেথ্রাল সাপোজিটরি এবং 

৩. টেস্টোস্টেরন প্রতিস্থাপন।



ইরেকটাইল ডিসফাংশনের সমস্যায় ভুগলে কিছু ব্যায়াম করা যেতে পারে।


ইরেকটাইল ডিসফাংশনের সমস্যার জন্য ওভার-দ্য কাউন্টার সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ এবং ভেষজ প্রতিকারের চেষ্টা এড়িয়ে চলাই ভালো। এছাড়াও চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোন ঔষধ সেবন করা ঠিক হবে না। সেজন্য যেকোনো সমস্যা দেখা দেওয়ার সাথে সাথে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করতে হবে। 


Share

You May Like

Cloud categories

vertigo cobra itchy sneezing gastrointestinal stromal tumor tic disorders aids cancer stomach upset trauma peritonitis heart disease arthritis gum disease kaposi's sarcoma diarrhea constipation calcium supplement contact dermatitis herpes simplex braces lubrication allergic contact dermatitis laryngitis vitamin a etc lymphomas obesity breast bipolar disorder tia spasm kidney disease gastric swine flu hypothyroidism

অপর্যাপ্ত ঘুমের কারণে বিষণ্ণতার সৃষ্টি হয় সাথে বারে ওজন

ব্যস্ত জীবনের সঙ্গে তাল মিলাতে গিয়ে অনেকেই পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমাতে পারেন না অথবা অনেকে বিছা ...

0 Like

আয়ুর্বেদ অনুযায়ী পেটের চর্বি গলানোর ৯ টি সহজ উপায়

আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষই ওজন কমানো নিয়ে অনেক বেশি চিন্তার মধ্যে থাকে। ভুল খাদ্যভাসের জন ...

0 Like

যেসব নিয়ম মেনে গোসল করলে স্ট্রোক এর ঝুঁকি কমে

স্ট্রোক সাধারণত বাথরুমেই বেশি হয়ে থাকে। কারণ, বাথরুমে ঢুকে গোসল করার সময় আমরা প্রথমেই মাথা ...

0 Like

মানুষ কেন দুঃস্বপ্ন দেখে ? কিভাবে এর থেকে মুক্তি পাবেন ?

দুঃস্বপ্ন দেখার ফলে একেক মানুষের উপর একেক প্রভাব পরে। অনেকে রাতের বেলা দুঃস্বপ্ন দেখে ভয়ে ...

0 Like

ধ্বজভঙ্গ এবং পুরুষের যৌন দুর্বলতার স্থায়ী চিকিৎসা

আমাদের দেশে পুরুষদের যৌন দুবর্লতার সমস্যা মনে হয় খুবই বেশী। অন্তত রাস্তাঘাটের দেয়ালে দেয ...

1 Like

সাধারণ সবজির অসাধারণ উপকারিতা

লাউ একটি সাধারণ সবজি কিন্তু এটা ডায়বেটিস, জন্টিস ও কিডনির সমস্যা অনেক উপকারী। যারা ঘুরতে য ...

0 Like

অর্জুনের ভেষজ গুনা গুণ

গবেষণায় দেখা গেছে, অর্জুন ছাল হৃদরোগ ছাড়াও আর বেশ কিছু জটিল রোগের উপশম করে। যেমন...১। অর্জ ...

0 Like

কেন মানুষের মন খারাপ থাকে ? কিভাবে মানুষিক স্বাস্থ্য ঠিক রাখবেন ?

মন নিয়ে সঠিক সংজ্ঞা এখনো পর্যন্ত কেউ দিতে পারেনি। মন অনেক জটিল একটা জিনিস। মন এমন একটা বিষ ...

0 Like